BN/Prabhupada 0001 - এক কোটি পর্যন্ত ছড়িয়ে দিন

From Vanipedia
Jump to: navigation, search
Go-previous.png Previous Page - Video 1080
Next Page - Video 0002 Go-next.png

এক কোটি পর্যন্ত ছড়িয়ে দিন
- Prabhupāda 0001


Lecture on CC Adi-lila 1.13 -- Mayapur, April 6, 1975

চৈতন্য মহাপ্রভু সমস্ত আচার্যদের বলেছেন যে ... নিত্যানন্দ প্রভু, অদ্বৈত প্রভু এবং শ্রীবাসাদি-গৌর-ভক্ত-বৃন্দ, তারা শ্রীচৈতন্য মহাপ্রভুর নির্দেশ বাহক । সেইজন্য আচার্যদের পথ অনুগমন করার চেষ্টা করা উচিত। তাহলে আমাদের জীবন সফল হবে। এবং আচার্য হত্তয়া খুব কঠিন নয়। সর্বপ্রথমে আপনাকে আচার্যের একজন নিষ্টাবান সেবক হতে হবে, যা উনি বলছেন সেটাকে কঠোরভাবে অনুসরণ করুন, তাকে সনতুষ্ট করার চেষ্টা করুন এবং কৃষ্ণ ভাবনামৃতের প্রসারিত করুন। ব্যাস। এটা খুব কঠিন না। আপনার গুরুদেবের নির্দেশ অনুসরণ করার চেষ্টা করুন এবং কৃষ্ণভাবনামৃত প্রসারিত করার চেষ্টা করুন। সেটাই চৈতন্য মহাপ্রভুর আদেশ।

আমার আজ্ঞায় গুরু হইয়া তারো এই দেশ,
যারে দেখো তারে কহো "কৃষ্ণ উপদেশ
(চৈ.চ.মধ্য ৭.১২৮)

“আমার আদেশ অনুসরণ করলে, আপনি গুরু হতে পারবেন।” এবং যদি আমরা কঠোরভাবে আচার্যের পদ্ধতি অনুসরণ করি এবং আমরা সর্বোচ্চ প্রয়াস দ্বারা কৃষ্ণের নির্দেশ প্রসারিত করার চেষ্টা করি। যারে দেখো তারে কহো "কৃষ্ণ উপদেশ(চৈ.চ.মধ্য ৭.১২৮)কৃষ্ণ উপদেশ দুই ধরণের আছে। উপদেশ কথার অর্থ হল শিক্ষা। কৃষ্ণ দ্বারা প্রদত্ত শিক্ষা, সেটাও কৃষ্ণ উপদেশ, এবং কৃষ্ণ বিষয়ে প্রাপ্ত শিক্ষা, সেটাও 'কৃষ্ণ উপদেশ। কৃষ্ণস্য উপদেশ ইতি কৃষ্ণ উপদেশ। সমাস, ষষ্টি-তৎ-পুরুষ-সমাস। এবং কৃষ্ণ বিষয়ে উপদেশ, সেটাও কৃষ্ণ উপদেশ। বহুব্রীহী সমাস। সংস্কৃত ব্যাকরণ অধ্যয়ণ করার এটাই পদ্ধতি। সুতরাং কৃষ্ণের উপদেশ হচ্ছে ভগবদ-গীতা। তিনি প্রতক্ষ্য রূপে শিক্ষা দিচ্ছেন। সুতরাং যিনি এইভাবে কৃষ্ণ উপদেশ প্রচার করছেন, কেবলমাত্র কৃষ্ণ যা বলেছেন তাহাই পুনরাবৃত্তি করুন, তাহলে আপনিও আচার্য হয়ে যাবেন। এসব কিছু কঠিন নয়। সবকিছু এখানে বলা হয়েছে। আমাদের কেবল তোতাপাখির মত পুনরাবৃত্তি করতে হবে। তোতাপাখি ঠিক না। তোতাপাখি অর্থ বোঝে না; ও শুধু সহজভাবে পুনরাবৃত্তি করে। কিন্তু আপনাকে এর অর্থও বুঝতে হবে; অন্যথায় আপনি কিভাবে ব্যাখ্যা করবেন? তাই আমরা কৃষ্ণভাবনামৃত প্রচার করা উচিত। শুধু নিজেকে তৈরি করুন কিভাবে কৃষ্ণের নির্দেশাবলী , আরও সুন্দরভাবে কোনও অপব্যাখ্যা ছাড়াই ব্যাখা করা যায়। ভবিষ্যতে …মনে করুন আপনাদের কাছে এখন দশ হাজার জন আছে। তারপর আমরা এক লাখে বিস্তৃত হবো। এর প্রয়োজন আছে। তারপর এক লাখ থেকে দশ লাখ, এবং দশ লাখ থেকে এক কোটি হবো।

ভক্তজনঃ হরিবোল! জয়!

তাহলে আচার্যের কোন অভাব থাকবে না। এবং মানুষ অনেক সহজে কৃষ্ণভাবনামৃত বুঝতে পারবে। তাই এইরকম সংঘের নির্মাণ করুন। মিথ্যাভাবে গর্ব করবেন না। আচার্যদের শিক্ষা পালন করুন। আপনি নিজেকে উত্তম বানানোর চেষ্ঠা করুন। তাহলে মায়া কে পরাজিত করা খুব সহজ হয়ে যাবে। হ্যাঁ। আচার্যরা, তারা মায়ার বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষনা করেছেন।