BN/Prabhupada 0022 - কৃষ্ণ ক্ষুধার্ত নয়

From Vanipedia
Jump to: navigation, search
Go-previous.png Previous Page - Video 0021
Next Page - Video 0023 Go-next.png

কৃষ্ণ ক্ষুধার্ত নয়
- Prabhupāda 0022


Lecture on SB 1.8.18 -- Chicago, July 4, 1974

কৃষ্ণ বলেন, "আমার ভক্ত, স্নেহের সঙ্গে", যো মে ভক্তা প্রযচ্ছতি। কৃষ্ণ ক্ষুধার্ত নয়। কৃষ্ণ তোমার অর্পণ গ্রহন করতে আসেন না, কারন সে ক্ষুধার্ত । না সে ক্ষুধার্ত নয়। তিনি স্বয়ংসম্পূর্ন এবং আধ্যাত্মিক জগতে তিনি সেবিত হন, লক্ষ্মী-সহস্র-শত-সভ্রম-সেব্যমানম,, সহস্র লক্ষ্মী ওনার সেবা করেন। কিন্তু কৃষ্ণ এত দয়ালু , আপনি যদি কৃষ্ণকে খুব ভালবাসেন তিনি আপনার পত্রম পুষ্পম গ্রহণ করবে। যদি আপনি হতদরিদ্র হন তাহলেও তিনি আপনার অর্পণ গ্রহণ করবে। একটু পাতা, একটু জল , একটু ফুল, জগতে যে কেউ নিরাপদ হতে পারেন, ভগবান কে অর্পণ করতে পারেন। "কৃষ্ণ, আমার কাছে কিছুই নাই, আমি অনেক দরিদ্র, দয়া করে এটা গ্রহণ করুন। " কৃষ্ণ গ্রহণ করবেন, কৃষ্ণ বলেন, তদ আহম অস্নামি, আমি গ্রহণ করি। আসল জিনিস হচ্ছে, ভক্তি, স্নেহ, ভালবাসা। এইজন্যে এইখানে বলা হয়েছে, অলক্ষ্যম। . কৃষ্ণ কে দেখা যায় না, ভগবানকে দেখা যায় না। কিন্তু তিনি এত দয়ালু যে তিনি আমাদের এই ভৌতিক চক্ষু দিয়ে দেখা যেতে পারে । কৃষ্ণকে কোনো ভৌতিক সাধন দিয়ে দেখা যেতে পারে না। আমরা সবাই কৃষ্ণের বিভিন্ন অংশ। সব জীবসকল, কিন্তু আমরা একে ওপরকে দেখতে পারি না। তুমি আমাকে দেখতে পার না, আমি তোমাকে দেখতে পারি না। না, আমি তোমাকে দেখতে পারছি, তুমি কি দেখতে পারছো, তুমি আমার শরীর তা দেখতে পারছো। তাহলে যখন আত্মা শরীর থেকে চলে যায়, তাহলে কেন আমরা বলি " আমার বাবা চলে গেছেন ?" কেন বলছে বাবা চলে গেছে ? বাবা তো এখানে শুয়ে আছে। তাহলে আপনি কি দেখলেন ? আপনি পিতার মৃত শরীর তা দেখলেন। নিজের বাবা কে দেখেন নি। সুতরাং যদি আপনি কৃষ্ণের একটা অংশকনা আত্মাকে দেখতে না পান, তাহলে আপনি কৃষ্ণ কে কি করে দেখবেন? সুতরাং শাস্ত্র বলছে অথ শ্রীকৃষ্ণ -নামাদি, ন ভবেদ গ্রাহ্যম ইন্দ্রিয়াহ (চৈতন্য চরিতামৃত ১৭.১৩৬) এই ভোতা চোখ না কৃষ্ণ কে দেখতে পারে, না কৃষ্ণের নাম শুনতে পারে, নামাদি। নামা মানে নাম, নামা মানে নাম গুন, রূপ, লীলা। এই সব জিনিস ভোতা চোখ ও ইন্দিয় দিয়ে দেখা যাবে না। কিন্তু যদি তাদের কে শুদ্ধ করা যায় তাহলে , সেবনমুখে হি জীহবাদৌ, যদি তাদের কে ভক্তি দ্বারা শুদ্ধ করা যায় তাহলে , আপনি কৃষ্ণ কে, সব জায়গায় সব সময়ে দেখতে পারবেন। কিন্তু সাধারণ মানুষের জন্যে, অলক্ষ্যম; দৃশ্যমান নয়। কৃষ্ণ সব জায়গায় আছেন, ভগবান সর্বত্র, অন্ডাম-তরস্তম পরমানু-চয়াম-তরস্তম। অলক্ষ্যম সর্ব-ভুতানাম। যদ্দপি কৃষ্ণ বাহির এবং ভিতর সব জায়গায় আছেন তবুও আমরা উনাকে দেখতে পারব না , দিব্যচক্ষু ছাড়া। সুতরাং কৃষ্ণ ভাবনামৃত সংঘ হচ্ছে ওই দিব্য চক্ষু খোলার জন্যে। এবং যদি আপনি কৃষ্ণকে দেখতে পারেন , অন্তর বাহির, তাহলে আপনার জীবন সফল হবে। সুতরাং শাস্ত্র বলেছে যে অন্তর -বাহির। অন্তর বাহির যদি হরিস তপসা তত কিম নন্ত্রর বাহির যদি হরিস তপসা তত কিম, সবাই নির্ভুল হতে চায় কিন্তু নির্ভুল মানে হচ্ছে, যখন একজন কৃষ্ণকে ভিতর এবং বাহিরে দেখবে। সেটা পরিপূর্ণতা।