BN/Prabhupada 0284 - আমার স্বভাব অধীনস্ত হওয়া

From Vanipedia
Jump to: navigation, search
Go-previous.png Previous Page - Video 0283
Next Page - Video 0285 Go-next.png

আমার স্বভাব অধীনস্ত হওয়া
- Prabhupāda 0284


Lecture -- Seattle, September 30, 1968

তাই এই কৃষ্ণভাবনামৃত আন্দোলন খুবই সহজ। খুব সহজ। এটি বিশেষভাবে ভগবান চৈতন্য মহাপ্রভু দ্বারা উদ্বোধন করা হয়েছে। যদিও এটি খুব প্রাচীন, বৈদিক শাস্ত্রে, তবে এখনও, যদি আপনি ঐতিহাসিক দৃষ্টিকোণ থেকে দেখেন, এই কৃষ্ণ ভাবনামৃত আন্দোলন সেই সময় থেকে আছে যখন ভগবান শ্রীকৃষ্ণ এই গ্রহে পাঁচ হাজার বছর আগে আবিভুত হয়েছিলেন।, এবং পরে, পাঁচশ বছর আগে ভগবান চৈতন্য, তিনি এই কৃষ্ণ ভাবনামৃত আন্দোলন প্রসারিত করেন, তাঁর আন্দোলন, ভগবান চৈতন্যের আন্দোলন হচ্ছে, আরাধ্য ভগবান ব্রজেশ তনয়। আপনি যদি ভালবাসতে চান, অথবা আপনি অধস্তন হতে চান ... সবাই অধস্তন। এটা মিথ্যা। প্রত্যেকেই স্বাধীন হতে চায়, কিন্তু কেউ স্বাধীন নয়। সবাই অধস্তন। কেউ বলতে পারে না যে "আমি স্বাধীন।" আপনি কি বলতে পারেন, আপনাদের মধ্যে কেউ যে আপনি স্বাধীন? কেউ আছে এখানে? না। সবাই অধস্তন,সুখী ভাবে। শক্তি দ্বারা নয়। সবাই অধস্তন হবে। একটি মেয়ে বলে (একটি ছেলেকে), "আমি আপনার অধীনে থাকতে চাই," স্বেচ্ছায়। একইভাবে একটি ছেলে একটি মেয়েকে বলছে, "আমি তোমার অধস্তন হতে চাই।" কেন? এটা আমার প্রকৃতি। আমি অধস্তন হতে চাই, কারণ আমার প্রকৃতিটি অধস্তন। কিন্তু আমি জানি না। আমি চাই ... আমি এই অধীনস্ত প্রত্যাখ্যান করেছি, আমি অন্য অধস্তনতা স্বীকার করেছি। কিন্তু অধস্তনতা আছে। একটি কর্মীর মত। তিনি এখানে কাজ করে। তিনি অন্য স্থানে কিছু ভাল মজুরি পায়, সে সেখানে চলে যায়। কিন্তু তার মানে এই নয় যে সে স্বাধীন, সে অধস্তন। তারপর প্রভু চৈতন্য শিক্ষা দেন যে আপনি যদি অধস্তন হতে চান বা আপনি যদি কাউকে উপাসনা করতে চান ... কে অন্য কারো পূজা করে? আপনি যদি মনে না করেন যে সে আপনার চেয়ে বড়, তাহলে আপনি কেন তার উপাসনা করবেন? আমি আমার মালিকের উপাসনা করি কারণ আমার মনে হয় সে আমার চেয়ে বড়। তিনি আমাকে ছয় শত ডলার বেতন, মাসিক দেন। তাই আমাকে তাকে উপাসনা করতে হবে, আমাকে তাকে খুশী করতে হবে। তাই চৈতন্য মহাপ্রভু বলছেন যে আপনি কৃষ্ণের অধীনস্ত হন। আরাধ্য ভগবান ব্রজেস তনয়। যদি আপনি উপাসনা করতে চান, কৃষ্ণের উপাসনা করুন। এবং তারপর তদ্ধাম বৃন্দাবন। যদি আপনি কাউকে উপাসনা করতে চান, তাহলে কৃষ্ণকে ভালোবাসুন অথবা কৃষ্ণকে পূজা করুন বা তার স্থান বৃন্দাবনের পুজা করুন। যেহেতু সবাই কোন জায়গাকে ভালোবাসতে চায়। এই এখন জাতীয়তাবাদ - কোন দেশে। কেউ বলে, "আমি এই আমেরিকান জমি ভালবাসি।" কেউ বলে, "আমি এই চিনের জমি ভালোবাসি।" কেউ বলে, "আমি রাশিয়ান জমি পছন্দ করি।" তাই সবাই কিছু জমি ভালবাসতে চায়। ভৌম ইজ্যধীঃ। ভৌম ইজ্যধীঃ। মানুষ স্বাভাবিকভাবেই কিছু জড় জমিকে ভালবাসতে প্রলুব্ধ হয়। সাধারণত, তিনি যেখানে জন্মগ্রহণ করেন, তিনি তাকে ভালবাসতে চেষ্টা করেন। চৈতন্য মহাপ্রভু বলেন যে "যেহেতু আপনি কাউকে ভালবাসতে আগ্রহী, আপনি কৃষ্ণকে ভালবাসুন। কারণ আপনি যদি কোন জমিকে প্রেম করতে চান তবে বৃন্দাবনকে ভালবাসুন।" আরাধ্য ভগবান ব্রজেস-তনয় তদ্ধাম বৃন্দাবনম। কিন্তু কেউ যদি বলে, "কীভাবে কৃষ্ণকে ভালবাসব? আমি কৃষ্ণকে দেখতে পাই না কীভাবে আমি কৃষ্ণকে ভালবাসব?" তারপর চৈতন্য মহাপ্রভু বলছেন, রম্যা কশ্চিৎ উপাসনা ব্রজব্ধু-বর্গেন যো কল্পিতা। আপনি যদি জানতে চান, আপনি যদি শিখতে চান, কৃষ্ণের পূজা করার প্রক্রিয়া, অথবা কৃষ্ণকে ভালবাসার প্রক্রিয়া, শুধু গোপীদের পদাঙ্ক অনুসরণ করার চেষ্টা করুন। গোপী। গোপী, তাদের প্রেম - সর্বোচ্চ পূর্ণ প্রেম। রম্যা কশ্চিৎ উপাসনা। বিশ্বের বিভিন্ন ধরনের প্রেম বা উপাসনা আছে। শুরু হয়, "হে ভগবান, আমাদেরকে রোজ রুটি দিন।" এই শুরু, যখন আমাদেরকে,আমার বলার উদ্দেশ্য হল ভগবানকে ভালোবাসতে শেখান হয়, আমাদেরকে নির্দেশ দেওয়া হয়: "আপনি মন্দির যান, গির্জায় যান, এবং আপনার চাহিদার জন্য ঈশ্বরের কাছে প্রার্থনা করুন, আপনার অভিযোগের জন্য।" এটা শুরু। কিন্তু এটা বিশুদ্ধ প্রেম নয়। বিশুদ্ধ ভালবাসা, বিশুদ্ধ প্রেমের বিশুদ্ধতা, গোপীদের মাঝখানে পাওয়া যেতে পারে। এই উদাহরণ। কিভাবে? তারা কীভাবে কৃষ্ণকে ভালবাসবে? তারা কৃষ্ণকে ভালবাসে। কৃষ্ণ গিয়েছিল... কৃষ্ণ একটি রাখাল ছেলে ছিল এবং তার বন্ধুদের সাথে, অন্য রাখাল ছেলেদের সাথে, তিনি সারা দিন তার গরুদের সঙ্গে চারণভূমিতে যেতেন। এই ব্যবস্থা ছিল। কারন মানুষ জমি ও গরু নিয়ে সেইসময় সন্তুষ্ট ছিল, ব্যাস। এটাই সমস্ত অর্থনৈতিক সমস্যার সমাধান। তাদের শিল্প ছিল না, তারা কারও চাকরি করত না। শুধু মাটি থেকে উৎপাদন এবং গরু থেকে দুধ গ্রহণ, তাই পুরো খাদ্য সমস্যা সমাধান।