Please join, like or share our Vanipedia Facebook Group
Go to Vaniquotes | Go to Vanisource | Go to Vanimedia


Vanipedia - the essence of Vedic knowledge

BN/Prabhupada 0013 - চব্বিশ ঘণ্টাই যুক্ত থাকা

From Vanipedia


চব্বিশ ঘণ্টাই যুক্ত থাকা
- Prabhupāda 0013


Lecture on BG 2.49-51 -- New York, April 5, 1966

যুগ কর্মসু কৌশলম । কৌশলম অর্থাৎ কৌতুক বিশেষজ্ঞ। যেমন দুটা মানুষ কাজ করছে। একজন মানুষ দক্ষ আরেকজন নয়। এমনকি যন্ত্রপাতি, যন্ত্রপাতিতে কিছু খারাপ হয়ে গেছে। নবশিক্ষার্থী মানুষ তা রাত-দিন চেষ্টা করছে ওটাকে ঠিক করার জন্যে। কিভাবে এটাকে ঠিক করতে হবে, কিন্তু দক্ষ মানুষ একবারেই বুঝে যায় খারাপটা কোথায়। আর তিনি একটি তার এখানে সেখানে জুড়ে যন্ত্রটিকে চালিয়ে দেয়। হ্র্রুম,হ্র্রুম ,হ্র্রুম ,হ্র্রুম ,হ্র্রুম ,হ্র্রুম , দেখ....... যেমন কখনও কখনও আমাদের টেপ রেকর্ডার টা খারাপ হয়ে যায়। এবং মিঃ কার্ল মহাশয় এসে এটা ঠিক করে যায়। সুতরাং সব কিছুতে কিছু দক্ষ জ্ঞান লাগে। সুতরাং কর্ম, কর্ম মানে কাজ, আমাদের কাজ করতে হবে। বিনা কর্মতে এমনকি শরীর এবং আত্মাও চলবে না। এটি একটি খুব ভুল ধারণা যে একজন যিনি... আধ্যাত্মিক উপলব্ধির জন্য কাজ করতে পারছেন না। না ওকে আরো কাজ করতে হবে। যারা আধ্যাত্মিক উপলব্ধির জন্য নয়, তারা নিযুক্ত হয় কাজে ,আট ঘন্টার জন্য, কিন্তু যারা আধ্যাত্মিক উন্নতির জন্যে নিযুক্ত হয় তাদের ২৪ ঘন্টা কাজ করতে হবে।২৪ ঘন্টা। এটাই পার্থক্য, এবং এই পার্থক্য ... আপনি দেখতে পাবেন শারীরিক স্তরে, জীবনের শারীরিক ধারনায়, যদি আপনি আট ঘণ্টা কাজ করেন তবে আপনি ক্লান্ত হবেন। কিন্তু আধ্যাত্মিক কারণের জন্যে যদি ২৪ ঘন্টার উপর কাজ করা হয় তাহলেও... যদিও আপনাকে ২৪ ঘন্টার বেশী পাওয়া যাবে না। তবু আপনি ক্লান্ত হবেন না , আমি বলছি । এটা আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা। এটা আমার ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা। এইযে আমি সব সময় কাজ করছি, কিছু পরছি অথবা লিখছি। কখনো পড়া অথবা লেখা, ২৪ ঘন্টা। যখন অমার খিদে পায়ে তখন আমি কিছু খাই। আর যখন আমার ঘুম পায়ে তখন আমি শুতে চলে যাই। এ ছাড়া, সবসময় কাজ করি, আমার ক্লান্ত লাগে না। আপনি পাল মহাশয় কে এই ব্যাপারে জিজ্ঞেস করতে পড়েন যে আমি এইরকম করছি কি না। সুতরং আমি করি, আমি এই কার্যতে সুখ অনুভব করি। কখনো ক্লান্ত হই না। একইভাবে যখন একজনের কাছে আধ্যাত্মিক চেতনা আসে তখন সে অনুভব করে। বরং তিনি ঘুমাতে যেতে ঘৃণা বোধ করবেন, সে ভাববে " ঘুম আসছে বিরক্ত করার জন্যে।" দেখুন? তিনি ঘুমের সময় কমিয়ে দিতে চান। আমরা প্রার্থনা করি , বন্দে রূপ-সনাতন রহু যুগৌ শ্রী-জীব-গোপালকৌ। এই ছয় গোস্বামী মহাপ্রভুর বিজ্ঞানের উপর চর্চা করতেন। তারা এ সম্পর্কে প্রচুর সাহিত্য রচনা করেছেন। তুমি দেখেছ? আপনারা শুনে আশ্চর্যচকিত হবেন যে তারা ঘুমোতেন, শুধুমাত্র দেড় ঘন্টা, তার বেশি নয়। সেটা ও কখনো কখন বাদ দিতেন।