BN/Prabhupada 0066 - কৃষ্ণের ইচ্ছার সঙ্গে আমাদের একমত হওয়া উচিত

From Vanipedia
Jump to: navigation, search
Go-previous.png Previous Page - Video 0065
Next Page - Video 0067 Go-next.png

আমদের কৃষ্ণের ইচ্ছের সাথে একমত হওয়া উচিত
-Prabhupāda 0066


Lecture on BG 16.4 -- Hawaii, January 30, 1975

এখন এটা আমাদের ইচ্ছা- আমরা ভক্ত হতে চাই না কি চাই না। না কি আমরা অসুর হয়ে থাকতে চাই। এটা আমাদের ইচ্ছা। কৃষ্ণ বলেছেন যে "তুমি এই অসুরিক মনোভাব ত্যাগ করে আমার স্মরণে আসো।" এটা কৃষ্ণের ইচ্ছা। কিন্তু আপনি যদি কৃষ্ণের ইচ্ছার সঙ্গে একমত না হন, যদি আপনি নিজের ইচ্ছা উপভোগ করতে চান, তারপরও, কৃষ্ণ সন্তুষ্ট হন, তিনি আপনাকে প্রয়োজনীয় সবকিছু সরবরাহ করবেন। কিন্তু এটা করা খুব ভাল নয়। আমাদের কৃষ্ণের ইচ্ছার সঙ্গে একমত হওয়া উচিত।

আমরা আমাদের ইচ্ছাকে, আসুরিক মনোভাবকে, বৃদ্ধি পেতে দেওয়া উচিত নয়। এটিকে বলা হয় তপস্যা। আমাদের নিজেদের ইচ্ছাকে ত্যাগ করা উচিত । একে বলা হয় যজ্ঞ। আমাদের শুধুমাত্র কৃষ্ণের ইচ্ছাকে গ্রহণ করা উচিত এটাই হলো ভগবত-গীতার নির্দেশ। অর্জুনের ইচ্ছা ছিল, না যুদ্ধ করার, কিন্তু কৃষ্ণের ইচ্ছা ছিল যুদ্ধ করা , একদম উল্টো। অর্জুন শেষ পর্যন্ত কৃষ্ণের ইচ্ছাকে মেনে নিলেন: "হ্যাঁ," করিষ্যে বচনম তব(ভ.গী.১৮.৭৩):"হাঁ, আমি আপনার ইচ্ছে মতো কার্য করব। এটাই ভক্তি।

ভক্তি আর কর্মের মধ্যে এটাই অন্তর। কর্মের অর্থ হচ্ছে নিজের ইচ্ছা পূরণ করা এবং ভক্তির অর্থ হচ্ছে কৃষ্ণের ইচ্ছা পূর্ণ করা। এটাই পার্থক্য । এখন আপনি বিচার করুন, আপনি কি আপনার ইচ্ছাগুলি পূর্ণ করতে চান না কি আপনি কৃষ্ণের ইচ্ছে পূরণ করতে চান। যদি আপনি কৃষ্ণের ইচ্ছা পূরণ করতে সিদ্ধান্ত নেন, তাহলে আপনার জীবন সফল। এটাই আমাদের কৃষ্ণভাবনাময় জীবন। কৃষ্ণ চাইছে, আমাকে করতে হবে। আমি আমার জন্য কিছুই করবো না।" এটাই বৃন্দাবন।

বৃন্দাবনের সমস্ত ব্রজবাসিরা, তারা কেবল কৃষ্ণের ইচ্ছা পূরণের চেষ্টা করছেন। রাখাল বালকেরা, বাছুর, গরু, গাছ, আর ফুল, জল, গোপিরা, বৃদ্ধ ব্রজবাসিরা, মাতা যশোদা, আর নন্দ, তারা সবাই কৃষ্ণের ইচ্ছা পূরণ করতে সর্বদা তৎপর। এটাই বৃন্দাবন। সুতরাং তুমি এই ভৌতিক জগতকে, বৃন্দাবন এ পরিনত করতে পার। যদি তুমি কৃষ্ণের ইচ্ছা পূরণ করতে মেনে নাও। এটাই বৃন্দাবন। এবং যদি আপনি নিজের ইচ্ছা পূরণ করতে চান, তাহলে তা ভৌতিক। এটাই হলো ভৌতিক এবং আধ্যাত্মিকের মধ্যে পার্থক্য।