BN/Prabhupada 0087 -জড় প্রকৃতির নিয়ম

From Vanipedia
Jump to: navigation, search
Go-previous.png Previous Page - Video 0086
Next Page - Video 0088 Go-next.png

উপাদান প্রকৃতির আইন
- Prabhupāda 0087


Sri Isopanisad Invocation Lecture -- Los Angeles, April 28, 1970

হ্যাঁ। এই ভৌতিক জগতে সব তত্ত্বের একটি নির্দিষ্ট সময় আছে। এবং এই নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ছয় ধরণের পরিবর্তন হয়। সর্ব প্রথম জন্ম, তারপর বৃদ্ধি, তারপর স্থিতি,. তারপর উৎপাদন, তারপর হ্রাস পাওয়া, তারপর অদৃশ্য হয়ে যায়। এটাই প্রকৃতির আইন। এই ফুল জন্ম নেয়, একটা কুঁড়ির মতো, তারপর বৃদ্ধি প্রাপ্ত হয়, তারপর দুই তিন দিন থাকে, তারপর এটি বীজ তৈরী করে, তারপর ধীরে ধীরে শুকিয়ে শেষ হয়ে যায়। (সরাইয়া :) আপনি এইরকম ভাবে বসুন। সুতরাং এটি ষড় বিকারকে বলা হয়, ছয় ধরনের পরিবর্তন। আমরা এটাকে তথাকথিত বিজ্ঞান দ্বারা বন্ধ করতে পারি না । না। এটাই অবিদ্যা, মানুষ নিজে বাচাঁর চেষ্টা করছে। এবং মাঝে মাঝে বোকার মতো কথা বলছে, মানুষ বিজ্ঞান দ্বারা অমর হয়ে যাবে। রাশিয়ানরা এইরকম বলছে। সুতরাং এটি আবিদ্যা, অজ্ঞান। আপনি ভৌতিক নিয়মের প্রক্রিয়া বন্ধ করতে পারেন না। তাই ভগবদগীতায় বলে হয়েছে, দৈবী হ্যেষা গুনময়ী মম মায়া দুরত্যয়া (ভ.গী.৭.১৪)ভৌতিক প্রকৃতির প্রক্রিয়া, যা তিনটি গুণাবলী দিয়ে গঠিত হয় - সত্ত্বগুন, রজোগুন, তমোগুন.. তিনগুন। গুনের অরেকটি নাম হচ্ছে দড়ি। যেমন আপনারা দড়ি দেখেছেন, সেটি তিনটি দিকে মুড়ে থাকে। সবার প্রথমে পাতলা দড়ি থাকে, তারপর ওর মধ্যে তিনটি, জড়িয়ে থাকে, তারপর আবার তার মধ্যে তিনটি জড়িয়ে থাকে, তারপর আবার তিনটে, এটা ভীষন শক্ত হয়ে যায়। সুতরাং তিনটে গুন, সত্ত্ব, রজো, তমো গুন, তারা সব মিশ্রিত। আবার তারা কিছু উৎপণ্য করে, আবার মিশ্রিত হয়, আবার মিশ্রিত হয়। এই ভাবে একাশিবার তাদের পাকানো হয়। সুতরাং গুনময়ী মায়া, বার বার আপনাকে বন্ধন করে। তাই আপনি এই ভৌতিক জগতের বন্ধন থেকে বেরতে পারবেন না। বন্ধন, সুতরাং এটাকে বলে অপবর্গ। কৃষ্ণ ভাবনামৃত প্রক্রিয়ার অর্থ হচ্ছে পবর্গ প্রক্রিয়াকে বাতিল করা।

গতকাল আমি গর্গমুনিকে বলছিলাম এই পবর্গ কি। এই পবর্গের অর্থ হচ্ছে বর্ণমালার প অক্ষর। আপনার জানা আছে, দেবনগরী নিয়ে অধ্যয়ন যিনি করেছেন। দেবনগরী অক্ষর হচ্ছে, ক খ গ ঘ ঙ চ ছ জ ঝ ঞ এইভাবে পাঁচ সেট, এক পন্থিতে। তারপর পঞ্চম সেট আসে, প ফ ব ভ ম। সুতরাং এই পবর্গ মানে প, প্রথমে প প মানে পরব, হার। সবাই চেষ্টা করছে, বেঁচে থাকার জন্য কঠোর সংগ্রাম করছে, কিন্তু হেরে যাচ্ছে। প্রথমে প বর্গ । প মানে পরব। এবং তারপর ফ। ফ এর অর্থ হচ্ছে ফেনা। যেমন ঘোড়ার মতন, যখন খুব শক্ত কাজ করে, আপনি কিছু ফেঁনা মুখ থেকে বেড়চ্ছে দেখতে পাবেন, আমাদেরও কখনও কখনও, যখন আমরা খুব ক্লান্ত হয়ে যাই। খুব কঠিন কাজ করার পরে, জিহ্বা শুষ্ক হয় এবং কিছু ফেনা আসে। সুতরাং প্রত্যেকে খুব কঠিন কাজ করেন শুধুমাত্র ইন্দ্রিয় তৃপ্তির জন্য, কিন্তু হেরে যান। প, ফ এবং ব, ব মানে বন্ধন। প্রথমে প, দ্বিতীয় ফ, তারপর বন্ধন তৃতীয়, তারপর ব, ভ। ভ মানে পিটানো, ভীতি। এবং তারপর ম, ম মানে মৃত্যু অথবা মারা যাওয়া। সুতরাং কৃষ্ণ ভাবনামৃত হওয়ার পদ্ধতি হচ্ছে অপবর্গ। অপ। অ মানে কিছু নয়। প বর্গ, এই হচ্ছে জড় জগতের লক্ষন, এবং যখন তুমি এই শব্দ যুক্ত করবে, অ, অপবর্গ, এটার অর্থ হচ্ছে নিরস্ত হওয়া।