BN/Prabhupada 0114 - একজন ভদ্রলোক যার নাম কৃষ্ণ, তিনি সবাইকে নিয়ন্ত্রণ করছেন

From Vanipedia
Jump to: navigation, search
Go-previous.png Previous Page - Video 0113
Next Page - Video 0115 Go-next.png

একজন ভদ্রলোক যার নাম কৃষ্ণ, তিনি সবাইকে নিয়ন্ত্রণ করছেন
- Prabhupāda 0114


Lecture -- Laguna Beach, September 30, 1972

ভাগবত-গীতাতে বলা হয়,

দেহিনোস্মিন যথা দেহে
কৌমারং যৌবনং জড়া
তথা দেহং তরো প্রাপ্তির
ধীরো স্তত্র ন মুহ্যতি
(ভ.গী. ২.১৩)

আপনি, আমি - আমাদের মধ্যে প্রত্যেকে - এই শরীরের মধ্যে নিযুক্ত। আমি চিন্ময় আত্মা, তুমি চিন্ময় আত্মা। এটি বৈদিক আইন, অহং ব্রহ্মাস্মিঃ আমি ব্রহ্ম।" তার মানে চিন্ময়। পরব্রহ্ম না, ভুল করবেন না, পরব্রহ্ম হচ্ছে ভগবান। আমরা ব্রহ্ম, ভগবানের অংশাতি অংশ , টুকরো। কিন্তু সুপ্রিম না, সুপ্রিম হচ্ছে ভিন্ন। যেমন তুমি আমেরিকান, কিন্তু সর্বচ্চো আমেরিকান হচ্ছে আপনাদের প্রেসিডেন্ট, মি. নিক্সন। কিন্তু আপনি বলতে পারেন না যে, "কারন আমি আমেরিকান তাই আমি নিক্সন"। সেটা আপনি বলতে পারেন না। তেমনি তুমি, আমি, আমরা সবাই ব্রহ্ম, কিন্তু তারমানে এই নয় আমরা পরব্রহ্ম। পরব্রহ্ম হচ্ছে কৃষ্ণ, ঈশ্বর পরমঃ কৃষ্ণ (ব্র.সং ৫.১) ঈশ্বর পরমঃ, ঈশ্বর মানে নিয়ন্তা। তাই আমরা প্রত্যেকে কিছুটা নিয়ন্ত্রণকারী। কেউ তার পরিবার নিয়ন্ত্রণ করছেন, তার অফিসে, ব্যবসা নিয়ন্ত্রণ করছেন, তার শিষ্যদের নিয়ন্ত্রণ করছেন। শেষ পর্যন্ত, তিনি একটি কুকুর নিয়ন্ত্রণ করছেন। যদি তিনি কিছু নিয়ন্ত্রণ করতে না পারেন, তবে তিনি একটি কুকুর নিয়ন্ত্রণ করেন, একটি পোষা কুকুর, একটি পোষা বিড়াল। তাই সবাই নিয়ামক হতে চায় এটা একটা সত্য। কিন্তু সুপ্রিম নিয়ামক হচ্ছে কৃষ্ণ। এখানে তথাকথিত নিয়ামক অন্য কারো দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়। আমি আমার শিষ্যদের নিয়ন্ত্রণ করতে পারি, কিন্তু আমি অন্য কারো দ্বারা নিয়ন্ত্রিত, আমার আধ্যাত্মিক মাস্টার দ্বারা। তাই কেউ বলতে পারে না যে "আমি পরম নিয়ামক।" না। এখানে আপনি তথাকথিত নিয়ামক পাবেন, অবশ্যই কিছুটা নিয়ামক, কিন্তু তিনিও নিয়ন্ত্রিত হয়। কিন্তু যখন আপনি কাউকে খুঁজে পান যে তিনি শুধুমাত্র নিয়ামক, যে কারো দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয় না, তিনি কৃষ্ণ। কৃষ্ণকে বুঝতে চেষ্টা করুন ,এটা খুব কঠিন নয়। বুঝতে চেষ্টা করুন যে সবাই নিয়ামক, আমাদের মধ্যে সবাই, কিন্তু একই সময়ে অন্য কারো দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হচ্ছে। কিন্তু আমরা একটি ভদ্রলোক খুঁজে পাই। যার নাম কৃষ্ণ। তিনি প্রত্যেককে নিয়ন্ত্রণ করছেন, কিন্তু তিনি কারো দ্বারা নিয়ন্ত্রিত নন। তিনি ভগবান।

ঈশ্বর পরমঃ কৃষ্ণ
সচ্চিদানন্দ বিগ্রহ
অনাদির আদি গোবিন্দ
সর্ব কারন কারনম
(ব্র.সং ৫.১)

তাই এই কৃষ্ণ ভাবনামৃত আন্দোলন খুব বৈজ্ঞানিক, অনুমোদিত এবং যুক্তিসঙ্গত মানুষ দ্বারা বোধগম্য। সুতরাং যদি আপনি এই কৃষ্ণ ভাবনামৃত আন্দোলনে আগ্রহী হন, তাহলে আপনি উপকৃত হবেন। আপনার জীবন সফল হবে। আপনার জীবনের লক্ষ্য অর্জন করা হবে। এটি একটি সত্য। তাই আপনি আমাদের সাহিত্য পড়তে চেষ্টা করতে পারেন। আমাদের অনেক বই আছে। আপনি আসতে পারেন এবং কার্যকরীভাবে দেখতে পারেন কিভাবে আমাদের ছাত্ররা কাজ করছে, কৃষ্ণ ভাবনামৃত আন্দোলনে অগ্রসর হচ্ছে। আপনি সংযুক্ত হওয়া দ্বারা তাদের কাছ থেকে শেখার চেষ্টা করতে পারেন। যদি কেউ একজন যান্ত্রিক মানুষ হয়ে উঠতে চায় তবে তিনি একটি কারখানাতে প্রবেশ করেন। এবং কর্মীদের সঙ্গ, মেকানিক্স সহ সহযোগী, এবং ধীরে ধীরে তিনি একটি মেকানিক, একটি প্রযুক্তিবিদ হয়ে ওঠে। একইভাবে, আমরা এই কেন্দ্রগুলি খুলেছি সবাইকে সুযোগ দেওয়ার জন্য। শিখতে হবে কিভাবে বাড়ি ফিরে যেতে হয়, ভগবদ্ধাম ফিরে যেতে হয়। এটা আমাদের লক্ষ্য। এবং এটি খুব বৈজ্ঞানিক এবং অনুমোদিত, বৈদিক। আমরা এই জ্ঞান সরাসরি কৃষ্ণ থেকে পাই, পরম পুরুষ ভগবান থেকে। এটাই ভগবত-গীতা। আমরা ভগবত-গীতা যথাযথ উপস্থাপন করছি, অর্থহীন মন্তব্য ছাড়াই। ভগবত-গীতায় কৃষ্ণ বলেছেন যে তিনি পরম পুরুষ ভগবান। আমরা একই প্রস্তাব স্থাপন করছি, যে পরম পুরুষ ভগবান হচ্ছেন কৃষ্ণ। আমরা এটা পরিবর্তন করছি না। কৃষ্ণ ভগবত গীতায় বলেছেন যে, আমার ভক্ত হও। সবসময় আমার চিন্তা করো। আমায় প্রনাম নিবেদন করো।" আমরা সব মানুষকে এই শিক্ষা দিচ্ছি " আপনি সর্বদা কৃষ্ণের চিন্তা করুন।" হরে কৃষ্ণ হরে কৃষ্ণ কৃষ্ণ কৃষ্ণ হরে হরে হরে রাম হরে রাম রাম রাম হরে হরে।" এই হরে কৃষ্ণ মহামন্ত্র জপের মাধ্যমে আপনি সর্বদা কৃষ্ণকে চিন্তা করতে পারেন।