BN/Prabhupada 0143 - লক্ষ লক্ষ কোটি বিশ্ব ব্রহ্মান্ড রয়েছে

From Vanipedia
Jump to: navigation, search
Go-previous.png Previous Page - Video 0142
Next Page - Video 0144 Go-next.png

লক্ষ লক্ষ কোটি বিশ্ব ব্রহ্মান্ড রয়েছে
- Prabhupāda 0143


Sri Isopanisad, Mantra 13-15 -- Los Angeles, May 18, 1970

"হে আমার পালনকর্তা, যে সব জীবনধারক, আপনার প্রকৃত মুখ ঝলকানি উজ্জ্বলতা দ্বারা আচ্ছাদিত। অনুগ্রহপূর্বক যেই আচ্ছাদন অপসারণ করুন এবং আপনার শুদ্ধ ভক্তের কাছে নিজেকে প্রদর্শন করুন।

এখানে বৈদিক প্রমান আছে। এই ঈশপনিষদ হচ্ছে বেদ, যজুর বেদ। তাই এখানে বলে হয়েছে, হিরন্ময়েন পাত্রেণ সত্বস্য অপহৃতম মুখম। যেমন সূর্য। সূর্য গ্রহ আছে, একজন প্রসিদ্ধ দেবতা যার নাম বিবস্বান। আমরা এই তথ্য ভগবতগীতা থাকে পেয়েছি। বিবস্বান মনবে প্রাহ। তাই প্রত্যেক গ্রহের মধ্যে একটি প্রসিদ্ধ দেবতা আছে। শুধু আপনার এই গ্রহের মত, দেবতা নয়, কেউ হয়ত যেমন রাষ্ট্রপতি আছে। পূর্বে, এই গ্রহে একমাত্র রাজা ছিলেন, মহারাজ পরিক্ষিৎ পর্যন্ত। এক রাজা ছিলেন...এই সমগ্র গ্রহের উপরে একমাত্র একটি পতাকা ছিল। একইভাবে, প্রতিটি গ্রহের মধ্যে একটি প্রসিদ্ধ দেবতা আছে। তাই এখানে বলা হয় যে সর্বোচ্চ প্রসিদ্ধ দেবতা হচ্ছে কৃষ্ণ। আধ্যাত্মিকের মধ্যে, আধ্যাত্মিক আকাশের সর্বাধিক গ্রহের মধ্যে। এটা জড় আকাশ, এই জড় আকাশে এটি একটা বিশ্ব। লক্ষ লক্ষ, কোটি কোটি বিশ্ব আছে। এবং এই সমস্ত বিশ্বে লক্ষ কোটী গ্রহ রয়েছে। যস্য প্রভা প্রভাবতো জগদন্ড কোটি (ব্র.সং ৫.৪০) জগদন্ড মানে বিশ্ব। অন্ডঃ যেমন এই ডিমের মত, এই সমস্ত বিশ্ব। তাই কোটি। কোটি মানে শহস্র এবং হাজার, তাই এই ব্রহ্মজ্যোতিতে শহস্র এবং হাজার বিশ্ব রয়েছে। এবং এই বিশ্বের মধ্যে শহস্র এবং হাজার গ্রহ রয়েছে। তেমনই আধ্যাত্মিক আকাশে, শহস্র এবং হাজার, অসংখ্য বৈকুন্ঠ গ্রহ রয়েছে। প্রত্যেক বৈকুন্ঠ গ্রহে পরম পুরুষ ভগবান দ্বারা প্রবক্তা। কৃষ্ণ গ্রহ ছাড়া, অন্য বৈকুন্ঠ গ্রহের প্রবক্তা হচ্ছে নারায়ণ। এবং প্রত্যেক নারায়নের বিভিন্ন নাম আছে, কিছু যা আমরা জানি। ঠিক যেমন আমরা উচ্চারণ করি প্রদ্যুম্ন, অনিরুদ্ধ,সংকর্ষণ... আমরা চব্বিশটা নাম পেয়েছি, কিন্তু আরও অনেক আছে। অদ্বৈত অচ্যুত অনাদিং অনন্ত রূপম (ব্র.সং ৫.৩৩)

তাই এই গ্রহগুলোকে ব্রহ্মজ্যোতির উজ্জ্বলতা দ্বারা আচ্ছাদিত করা হয়। তাই এখানে প্রার্থনা করা হয় যে, হিরন্ময়েন পাত্রেন সত্ত্বস অপহিতম। অপহিতম মানে ঢাকা। ঠিক যেমন আপনি সূর্যালোক দেখতে পাবেন না এই ঝলকানি সূর্যালোকের কারণে, অনুরূপভাবে, কৃষ্ণ গ্রহে, এখানে আপনার ছবি আছে। কৃষ্ণ গ্রহ থেকে উজ্জ্বলতা বেরিয়ে আসছে। অতএব, এই আলো অতিক্রম করতে হবে। এখানে প্রার্থনা করা হচ্ছে এখানে। হিরন্ময়েন পাত্রেন সত্ত্বস পরম সত্য হচ্ছে কৃষ্ণ, তার গ্রহ ব্রহ্ম জ্যোতি দ্বারা আচ্ছাদিত। তাই ভক্তরা প্রার্থনা করছে, দয়া করে এটা সরিয়ে নাও। এটি বাতাস সুতরাং যাতে আমি সত্যিই আপনাকে দেখতে পারি । " তাই ব্রহ্মজ্যোতি, মায়াবাদ দার্শনিকেরা, তারা জানে না যে ব্রহ্মজ্যোতির উপরে কিছু আছে, এখানে বৈদিক প্রমান আছে, যে ব্রহ্মজ্যোতি সোনালী আলোর মতো। হিরন্ময়েন পাত্রেণ। এই আচ্ছাদন পরম প্রভুর প্রকৃত মুখ। তৎ তং প্রসেন্ন পাব্রেনু। সুতরাং, "আপনি নিরর্থক, আপনি রক্ষণাবেক্ষণকারী। দয়া করে আচ্ছাদনটি উন্মুক্ত করুন যাতে আমরা আপনাকে প্রকৃতপক্ষে আপনার মুখ দেখতে পাই।"