BN/Prabhupada 0351 - তুমি কিছু লেখো, উদ্দেশ্য হওয়া উচিত পরমেশ্বরের গুণগান করা

From Vanipedia
Jump to: navigation, search
Go-previous.png Previous Page - Video 0350
Next Page - Video 0352 Go-next.png

তুমি কিছু লেখো, উদ্দেশ্য হওয়া উচিত পরমেশ্বরের গুণগান করা
- Prabhupāda 0351


Lecture on SB 1.5.9-11 -- New Vrindaban, June 6, 1969

তাই কাক এবং হাসের মধ্যে একটি প্রাকৃতিক পার্থক্য আছে, একইভাবে, কৃষ্ণ সচেতন ও সাধারণ মানুষের মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। সাধারণ মানুষের সাথে তুলনা করা হয় কাকের সাথে, এবং সম্পূর্ণ কৃষ্ণ সচেতন ব্যক্তি হাস বা পাঁতিহাঁসের মতো।

তাই তিনি বলেছেন,

তদ-বাগ-বিসর্গ জনতাঘ-বিপ্লবো
যস্মিন প্রতি শ্লোকম অভদ্রবতি অপি
নামানি অনন্তস্য যশৌ অঙ্কিতানি যৎ
শ্রবন্তি গায়ন্তি গৃহন্তি সাধবঃ
(শ্রী.ভ. ১.৫.১১)

বিপরীতভাবে, এটি একটি ধরনের সাহিত্য, খুব ভাল লিখিত, প্রতীকী, এবং কবিতা, সবকিছু। কিন্তু প্রভুর মহিমা সম্পর্কে কোন প্রশ্ন নেই। এটা তুলনা করা হয়, যেমন একই জায়গা যেখানে কাকরাই সুখী হয়। অন্যদিকে, অন্য প্রকারের সাহিত্য, কি অন্যান্য ধরনের? তদ-বাগ-বিসর্গ জনতাঘ-বিল্পবো যস্মিন প্রতি-শ্লোকম অভদ্রবতি অপি (শ্রী.ভা. ১.৫.১১)। একটি সাহিত্য যা জনগণের কাছে উপস্থাপন করা হয়, জনসাধারণকে পড়তে, যা ব্যাকরণে সঠিক নয়, কিন্তু কারণ এটিতে প্রভুর স্তুতি আছে, এটি বিপ্লব উৎপন্ন করতে পারে। এটি সমগ্র মানব সমাজকে শুদ্ধ করতে পারে। আমার গুরু মহারাজ, যখন তিনি 'হারমোনিস্ট' প্রকাশ করার জন্য নিবন্ধ নির্বাচন করতেন, যদি তিনি শুধু দেখতেন যে অনেকবার লেখক "কৃষ্ণ", "প্রভু চৈতন্য" লিখেছেন, তখন তিনি অবিলম্বে তা অনুমতি দিতেন। "ঠিক আছে, ঠিক আছে। (হাসি) এটা ঠিক আছে।" অনেকবার তিনি "কৃষ্ণ" এবং "চৈতন্য" নামটি গ্রহণ করেছেন, তাই এটি ঠিক আছে। একইভাবে, যদি আমরা ব্যাক টু গডহেড বা অন্য কোন সাহিত্যকে উপস্থাপন করি, ভাঙ্গা ভাষাতে। কারণ এটি প্রভুর প্রশংসা আছে তাই কোন সমস্যা নেই। এটাই নারদ সুপারিশ করেছে। তদ-বাগ-বিসর্গ জনতাঘ-বিপ্লবো। জনতাঘ। অঘ মানে পাপী কার্যকলাপ। যদি আমরা এই সাহিত্যের একটি লাইনও পড়ি, যদিও এটি ভাঙা ভাষাতে উপস্থাপন করা হয়েছে, কিন্তু যদি তিনি কেবল কৃষ্ণের কথা শুনেন, তবে তার পাপী কার্যকলাপ অবিলম্বে শেষ হয়ে যায়। জনতাঘ বিপ্লবো। তদ-বাগ-বিসর্গ জনতাঘ-বিল্পবো যস্মিন প্রতি-শ্লোকম অভদ্রবতি অপি নামানি অনন্তস্য (শ্রী.ভা. ১.৫.১১)। অনন্ত মানে অসীমিত। তার নাম, তার খ্যাতি, তার গরিমা, তার গুণাবলী বর্ণনা করা হয়। নামানি অনন্তস্য যশো অঙ্কিতানি । প্রশংসা করা হয়, যদি তারা ভাঙা ভাষায় উপস্থাপন করা হয়, তাহলে শ্রনন্তি গায়ন্তি গৃহন্তি সাধবো। যেমন আমার গুরু মহারাজ, সাধু, একজন সৎগুরু তাৎক্ষনাৎ সম্মতি: "হ্যাঁ, ঠিক আছে।" এটা ঠিক আছে। কারণ সেখানে প্রভুর স্তুতি আছে। অবশ্যই, সাধারণ মানুষ বুঝতে পারবে না। কিন্তু এই আদর্শ, আদর্শ অনুবাদ, নারদ দ্বারা কথিত। আপনি কিছু লিখছেন, উদ্দেশ্য শুধুমাত্র পরমের মহিমা সন্মন্ধে হওয়া উচিত, তাহলে আপনার সাহিত্য বিশুদ্ধ, পবিত্র হবে। এবং যতই ভাল হোক, হোক সত্যি, রুপক বা কাব্যিক, আপনি কিছু সাহিত্য লিখেছেন যা ভগবান বা কৃষ্ণের সাথে কোন সম্পর্ক নেই, এটি ব্যায়স তীর্থ। এটি কাকের জন্য আনন্দের একটি স্থান। এটি নারায়ণ মুনির সংস্করণ। আমাদের এই কথা মনে রাখতে হবে। বৈষ্ণবের জন্য একটি যোগ্যতা আছে: কবিতা। আপনাকে অবশ্যই ... সবাইকে একজন কবি হতে হবে। তাই ... কিন্তু কবিতা, কবিতার ভাষা কেবল প্রভুর স্তুতির জন্য হওয়া উচিত।